শিরোনাম :
Home / নিয়ামতপুর / নিয়ামতপুরে অর্থাভাবে ছেলের চিকিৎসা করাতে পারছেননা পত্রিকা বিক্রেতা আদিবাসী রিপন হাঁসদা<<মহাদেবপুর দর্পণ>>

নিয়ামতপুরে অর্থাভাবে ছেলের চিকিৎসা করাতে পারছেননা পত্রিকা বিক্রেতা আদিবাসী রিপন হাঁসদা<<মহাদেবপুর দর্পণ>>

Spread the love

মহাদেবপুর দর্পণ, তোফাজ্জল হোসেন, নিয়ামতপুর (নওগাঁ), ৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ :

টাকার অভাবে চিকিৎসা হচ্ছেনা নওগাঁর নিয়ামতপুরের পত্রিকা বিক্রেতা আদিবাসী রিপন হাঁসদার ছেলে ঈশান হাঁসদার (৫)। জটিল রোগে আক্রান্ত ঈশান। চিকিৎসকের পরামর্শ দ্রুত তার শরীরে অস্ত্রোপচার প্রয়োজন। নইলে ঘটতে পারে অনাকাঙ্খিত ঘটনা। অস্ত্রোপচারের খরচ পড়বে দুই লক্ষাধিক টাকা। এ টাকার সংকুলান তার হকার বাবার পক্ষে অসম্ভব। চিকিৎসার অভাবে ধীরে ধীরে অবনতির দিকে যাচ্ছে শিশু ঈশান। কিন্তু অসহায় বাবার কিছুই যেন করার নেই, চোখের জল ফেলা ছাড়া।

ঈশানের বাবা নিয়ামতপুর উপজেলায় কর্মরত একমাত্র সংবাদপত্র হকার। কুঁড়েঘরে বাস করেও সন্তান ঈশানকে নিয়ে স্বপ্ন দেখেছিল বাবা। শেখ হাসিনার ডিজিটাল বাংলাদেশে সুশিক্ষায় সন্তানকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলবে সে। বড় হয়ে সেও সোনার বাংলার গর্বিত নাগরিক হয়ে দেশ সেবায় আত্মনিয়োগ করবে। কিন্তু যাকে নিয়ে স্বপ্ন দেখা, সেই সন্তান আজ জটিল রোগে আক্রান্ত। বাবা হয়েও সন্তানের চিকিৎসা ব্যয় নির্বাহ করতে পারছেন না তিনি।
রিপন হাঁসদা জানান, ঈশানের স্থানীয়ভাবে চিকিৎসা করা হচ্ছে। চিকিৎসক পরামর্শ দিলেও অর্থাভাবে উন্নত চিকিৎসা করাতে পারছেন না তিনি। দীর্ঘ করোনাকালীন লকডাউনে পত্রিকা বন্ধ থাকায় কর্মহীন অবস্থায় দিন কেটেছে তার। করোনা পরিস্থিতি কিছুটা স্বাভাবিক পর্যায়ে এলেও পত্রিকার সার্কুলেশন এখনো অনেক কম। আয় রোজগার একেবারে কমে গেছে তার।

এর মধ্যেও ঋণ করে ঈশানের চিকিৎসার জন্য বহুকষ্টে টাকা সংগ্রহ করে রাজশাহী মেট্রোপলিটন হাসপাতালে ডা. নওশাদ আলীর অধীনে চিকিৎসা করিয়েছেন। একমাত্র সন্তানকে বাঁচাতে, তার উন্নত চিকিৎসার জন্য টাকা সংগ্রহ করতে এখন দিশেহারা তিনি।

ছেলের চিকিৎসার জন্য সরকারি সহায়তা প্রয়োজন তার। এছাড়াও হিতৈষী, শুভানুধ্যায়ী ও দানশীল ব্যক্তদের কাছেও সাহায্যের আবেদন জানিয়েছেন তিনি।#

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

*